গরমে পুরুষের ত্বকের যত্ন

গরমে পুরুষের ত্বকের যত্ন

ত্বক হোক কিংবা চুল, গরমের দাবদাহ থেকে এদের রক্ষা করতে সর্বদাই সচেতন থাকেন মহিলারা। কিন্তু, এই রূপচর্চা কি শুধুমাত্র মহিলারাই করতে পারেন? একেবারেই না। বর্তমান দিনে মহিলাদের পাশাপাশি পুরুষরাও যথেষ্ট সচেতন তাদের রূপচর্চা নিয়ে। তাই এই গরমে পুরুষরা কীভাবে নিজের ত্বকের যত্ন নেবেন রইল তার কিছু টিপস্। এই গরমে পুরুষদের ত্বকের যত্ন নিতে কী কী করতে হবে তা দেখে নিন।

পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা

গরমে ঘামের সঙ্গে যদি ময়লা যুক্ত হয় তাহলে তা নানা ধরনের ত্বকের সমস্যা ও সংক্রমণ তৈরি করে। আর তাই গরমে সর্বদা পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকতে হবে। বাইরে যাতায়াতে কিংবা কাজের সময় দেহ ঘামলে কিংবা ধুলোবালি লাগলে তা দ্রুত পরিষ্কার করতে হবে। প্রয়োজনে একাধিকবার গোসল করতে হবে।

পানি পান করুন

গরমকালে নিজের ত্বকের যত্ন নিতে এবং নিজেকে ফিট রাখতে প্রচুর পরিমাণে পানি পান করা অত্যন্ত প্রয়োজন। গরমকালে অত্যাধিক ঘাম হওয়ার কারণে শরীরে পানির অভাব দেখা দেয়। যার ফলে ত্বক রুক্ষ এবং খসখসে হয়ে যায়। তাই দেহে পানির ভারসাম্যকে ঠিক রাখতে প্রচুর পরিমাণে পানি পান করা প্রয়োজন। এছাড়াও পানি শরীরকে ঠান্ডা রাখতে সাহায্য করে। এর কারণেই পানি পান করতে কখনোই ভুলবেন না। শরীর ঠান্ডা রাখতে পানির পাশাপাশি ফলের রস, ডাবের পানিও খেতে পারেন।

পোশাক নির্বাচন

আমরা সকলেই গরমের কষ্ট থেকে আরাম পেতে হাফ হাতা জামা বা টি-শার্ট পরি। কিন্তু না, গরমে কোথাও বেরোনোর আগে হাফ হাতার পরিবর্তে ফুল হাতা পোশাক পরুন। কারণ, সূর্য থেকে নির্গত অতিবেগুনি রশ্মি আমাদের ত্বককে ক্ষতি করে। ত্বক খসখসে ও রুক্ষ্ম হয়ে যায়। তাই সূর্যের আলোকরশ্মি থেকে ত্বককে বাঁচাতে যতটা পারবেন ফুল হাতা পোশাক পরার চেষ্টা করুন।

সানস্ক্রিন ব্যবহার

গরমে বাড়ির বাইরে বেরোনোর আগে সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন। এটি কেবল মাত্র মেয়েরাই নয় ছেলেরাও ব্যবহার করতে পারে। আপনি অয়েল ফ্রি এবং সান প্রোটেকশন ফ্যাক্টর ৩০ (SPF 30) যুক্ত সানস্ক্রিন ব্যবহার করতে পারেন। বাইরে থাকাকালীন প্রতি দুই ঘণ্টা অন্তর এটি ব্যবহার করুন। এই সানস্ক্রিন ত্বকের লালচে ভাব এবং জ্বালাভাব-কে দূর করে। মুখ, ঘাড় এবং হাতে সানস্ক্রিন লাগিয়ে নেবেন।

ফেস ওয়াইপস্

গরমে বাইরে থাকার সময় ফেস ওয়াইপস ব্যবহার করতে পারেন। এটি ভেজা সুগন্ধিযুক্ত একটি টিস্যু। অফিসে পৌঁছে বা ঘরে ফিরে একটু জিরিয়ে নিয়ে ফেস ওয়াইপস্ দিয়ে মুখ মুছে নিতে পারেন। এতে মুখের ময়লা অনায়াসেই দূর হয়ে যায় এবং ত্বককে ঝকঝকে ও সতেজ করে তোলে।

ক্লিনজিং

বাইরের আর্দ্রতার কারণে ত্বক তৈলাক্ত হয়ে যায়। বিশেষজ্ঞদের মতে, ত্বক থেকে বিষাক্ত পদার্থগুলো বার করতে দিনে অন্তত দু'বার ক্লিনজার দিয়ে মুখ, হাত ও ঘাড় পরিষ্কার করুন। তবে ত্বকের ধরন অনুযায়ী ক্লিনজার ব্যবহার করবেন। ক্লিনজার ব্যবহারের সময় হালকা গরম পানিতেমুখ ধুতে পারেন। চেষ্টা করুন ক্যামিকেল মুক্ত ক্লিনজার ব্যবহার করতে। বাড়িতে তৈরি ক্লিনজার ত্বকের জন্য উপকারি।

ময়েশ্চারাইজিং

গরমকালে ময়েশ্চারাইজ করা ত্বকের জন্য খুবই উপকারি। এটি আপনার ত্বককে রোগ সংক্রমিত হওয়ার থেকে রক্ষা করে। পাশাপাশি ত্বককে সতেজ রাখে এবং কুঁচকে যাওয়া থেকেও ত্বককে রক্ষা করে। এছাড়াও ত্বকের হাইড্রেশন এবং ট্যান দূর করতে ব্যবহার করতে পারেন শসা এবং টমেটোর রস।

 

 

এক্সফোলিয়েট করা

এক্সফোলিয়েশন ত্বকের মৃত কোষকে সরাতে সাহায্য করে এবং ত্বককে সতেজ রাখে। আপনার ত্বক যদি তৈলাক্ত হয় তবে সপ্তাহে অন্তত দুইবার এবং ত্বক যদি শুষ্ক হয় তবে সপ্তাহে একবার এটি করুন।

স্ক্রাব করুন

গরমে নিয়মিত ত্বক স্ক্রাব করা যেতে পারে। রোদে বাইরে বেরুলে ত্বকের উপরিভাগে কালো ছোপ দাগ পরে এবং ধুলোবালি জমে। ধুলোবালি ত্বকে ব্রণের সমস্যা সৃষ্টি করে। তাই এমন স্ক্রাব ব্যবহার করা উচিৎ যা প্রতিদিন ব্যবহার করা যায়। বাইরে থেকে ফিরেই ত্বক দ্রুত স্ক্রাব করে ফেলুন।

সূত্রঃ ইন্টারনেট

Leave A Reply
VIP Privileges