Purchase 2,999 Tk. or more & use the voucher code: #lovethemall, to get a HEART-SHAPED BOX FREE!

শীতকালে যেসব এ্যাসেন্সিয়াল স্টেপস  আমরা ফলো করতে ভুলে যাই

শীতকালে যেসব এ্যাসেন্সিয়াল স্টেপস আমরা ফলো করতে ভুলে যাই

ঋতু পরিবর্তনের সাথে সাথে আমাদের ত্বকেও পরিবর্তন আসে। বিশেষ করে শীতের সময় আবহাওয়ার যে পরিবর্তন হয় তা আমাদের ত্বককে নিস্তেজ এবং শুষ্ক করে তোলে। এর পাশাপাশি ঠোট ফাটা, ত্বক ফেটে যাওয়া, ত্বকে চুলকানি, চামড়া টানটান হয়ে যাওয়া সহ অনেক ধরনের সমস্যা দেখা যায়। তাই শীতকালে ত্বকের সুস্বাস্থ্য রক্ষায় দরকার বাড়তি যত্ন ও সতর্কতা।

শীতকালে যেসব এ্যাসেন্সিয়াল স্টেপস আমরা ফলো করতে ভুলে যাই:

1. অয়েল ক্লিঞ্জার

আপনার ত্বক তৈলাক্ত হলেও শীতকালে তা আস্তে আস্তে শুষ্ক হতে শুরু করে। তাই ত্বকের এই শুষ্কতা ব্যালেন্স করতে আমাদের উচিত তেল ব্যবহার করা। ক্লিঞ্জিং অয়েল ত্বককে ময়েশ্চারাইজড করে। অনেকেই অয়েল ক্লিঞ্জার ব্যবহার করা নিয়ে বেশ উদ্বিগ্ন থাকেন। তারা ভাবেন অয়েল ক্লিঞ্জার ত্বককে আরও তৈলাক্ত ফেলবে কিন্তু আসলে ব্যাপারটা ঠিক তার উল্টো। অয়েল বেসড ক্লিঞ্জার আমাদের ত্বককে কোমল এবং মসৃণ করে। এমনকি দিন শেষে মেকআপ উঠিয়ে ফেলার সময়ও এটা ত্বকে কোন ধরনের সমস্যা করেনা।

সম্ভব হলে প্রতিদিন একবার করে ক্লিঞ্জার ব্যবহার করা উচিত। অয়েল ক্লিঞ্জার ব্যবহারের উপযুক্ত সময় হচ্ছে রাত। আপনি রাতের বেলা অয়েল ক্লিঞ্জার ব্যবহার করুন এবং সকালবেলা যদি দেখেন যে আপনার ত্বক বেশি তৈলাক্ত হয়ে আছে তাহলে ভালভাবে মুখ ধুয়ে ফেলুন এবং ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন।

2. অ্যাম্পিউল

অ্যাম্পিউল হচ্ছে এক ধরনের সিরাম যাতে একটিভ ইনগ্রেডিয়েন্ট এর পরিমান অনেক বেশি থাকে। আমরা এটি স্কিন প্রোমোটার হিসেবে স্বল্প সময়ের জন্য ত্বকে ব্যবহার করতে পারি। আপনি চাইলে ট্রিটমেন্ট এর জন্যও অ্যাম্পিউল ব্যাবহার করতে পারেন। বিভিন্ন ধরনের ত্বকের জন্য অ্যাম্পিউল এর ব্যবহার বিভিন্ন রকম হয়ে থাকে। রাতের বেলা অ্যাম্পিউল এর ব্যবহার ত্বকের জন্য অত্যন্ত উপকারি।

অ্যাম্পিউল শুষ্ক ত্বকের জন্য খুব ভাল কাজ করে। হায়ালুরোনিক এসিড শুষ্ক ত্বকের জন্য অত্যন্ত ভাল একটি উপাদান। অ্যাম্পিউল এর হায়ালুরোনিক এসিড ত্বকে ময়েশ্চার ধরে রাখতে সাহায্য করে। আপনি হাতের তালুতে কয়েক ফোঁটা অ্যাম্পিউল নিন এবং ত্বকে ব্যবহার করুন।

আমরা হায়ালুরোনিক এসিড আমাদের রুটিনে রাখতে পারি। এসিড নামটি শুনতে ভয় লাগলেও আমাদের ত্বকের জন্য খুব ই ভাল এবং এটি পাওয়ারহাউজের মত কাজ করে। এতে থাকে অ্যান্টি এজিং উপাদান এবং ত্বকে ময়েশ্চার ধরে রাখে। পাশাপাশি এটি আমাদের ত্বককে করে কোমল এবং মসৃণ।

3. স্লিপিং মাস্ক

যদিও ধাপটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ তারপরেও আমরা এই ধাপটি এড়িয়ে যাই। স্লিপিং মাস্ক আমাদের ত্বকের বিভিন্ন সমস্যা সমাধান করে। স্লিপিং মাস্ক আমাদের ত্বককে হাইড্রেট করে এবং ত্বকের ড্রাই প্যাচ এবং নিস্তেজতা দূর করে। যেসব স্লিপিং মাস্কে পেপটাইড, হারবাল এক্সট্র্যাকট, এসেনশিয়াল অয়েল এবং হায়ালুরোনিক এসিড থাকে সেসব স্লিপিং মাস্ক আমরা ব্যবহার করতে পারি।

এছাড়া আপনি চাইলে বাবল শিট মাস্ক ও ব্যবহার করতে পারেন। এটা অক্সিজেনের সাথে মিশে মাস্কের উপর ছোট ছোট বাবল তৈরি করে। ত্বক এক্সফোলিয়েশন বা ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে বাবল শিট মাস্ক দারুন কার্যকরী।

এছাড়াও আপনি চাইলে ভিটামিন সি শিট মাস্ক ও ব্যবহার করতে পারেন। ভিটামিন সি শিট মাস্ক আমাদের ত্বককে হাইড্রেট করে। ভিটামিন সি শিট মাস্ক সকলের ব্যবহারের জন্য উপযোগী।

4. ফেস মিষ্ট

ফেস মিষ্ট ত্বকের জন্য খুব ই কার্যকরী। এটা সহজেই ব্যবহার করা যায় এবং সাথে রাখাও সহজ। আপনি যদি ত্বকে শুষ্কতা অনুভব করেন তাহলে আপনি সাথে সাথে ফেস মিষ্ট ব্যাবহার করতে পারেন। ফেস মিষ্ট ত্বককে করে তোলে মসৃণ এবং উজ্জ্বল। ফেস মিষ্ট আমাদের ত্বককে স্বাস্থ্যজ্জল করে তোলে। ফেস মিষ্ট এর উপাদানগুলো ত্বকের টেক্সারকে আরও উন্নত করে। শীতে ত্বককে উজ্জ্বল এবং মসৃণ রাখার জন্য ফেস মিষ্ট এর জুড়ি নেই।

5. নারিকেল তেল এবং এলো ভেরা জেল

শীতে আমাদের ত্বকে বিভিন্ন ধরনের ডিসঅর্ডার দেখা দেয় যেমন – র‍্যাশ, চুল্কানি, জ্বালাপোড়া ইত্যাদি। এ ধরনের সমস্যার সবচাইতে ভাল সমাধান হচ্ছে নারিকেল তেল এবং এলো ভেরা জেল। প্রথমে অল্প পরিমাণ নারিকেল তেল এবং এলো ভেরা জেল নিয়ে ত্বকের যে জায়গাতে সমস্যা আছে সেখানে মাখুন। এবার আলতোভাবে মাসাজ করুন। এবার এভাবে সারারাত রেখে দিন। পুরো শীতজুড়ে এই পদ্ধতি মেনে চলুন। নারিকেল তেল এবং এলো ভেরা জেল আপনাকে দিবে আরামদায়ক অনুভুতি এবং আপনার ত্বকের সমস্যাগুলো ও চমৎকার ভাবে সমাধান করবে।

6. BB ক্রিম

ফাউন্ডেশন এর সবচাইতে ভাল বিকল্প হচ্ছে BB ক্রিম। BB ক্রিম ত্বককে চমৎকার কাভারেজ দেয়। আপনি ১-২ পাম্প BB ক্রিম নিন এবং ত্বকে ব্যবহার করুন।

 

আনন্দের একটি ঋতু এই শীতকাল। এই ঋতুকে পুরোপুরি উপভোগ করতে আমাদের উচিত ত্বকের বাড়তি যত্ন নেয়া। আর এর জন্য আমাদের শুধু কিছু ধাপ মেনে চলতে হবে। সুস্থ এবং স্বাস্থ্যজ্জল ত্বকের জন্য প্রয়োজন সঠিক প্রসাধনী ব্যবহার, পর্যাপ্ত পানি পান এবং পর্যাপ্ত ঘুম। এগুলো ঠিকভাবে মেনে চললে আপনার ত্বক হয়ে উঠবে উজ্জ্বল এবং আকর্ষণীয়।

Leave A Reply
VIP Privileges